Uncategorized, বিনোদন, সেলিব্রিটি বার্তা

দর্শক হৃদয়ে জেগে উঠেই হারিয়ে যাওয়া কিছু দ্রুব তারা!!

বাংলাদেশের চলচ্চিত্র জগতের আকাশে এমন কিছু তারার মেলা আছে, যারা দর্শক হৃদয়ে জেগে উঠেই হারিয়ে গেছেন। তেমনি কয়েকজন হারিয়ে যাওয়া নায়িকাকে নিয়ে কিছু তথ্য তুলে ধরা হলো

১৯৯৭ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ছবি ‘হৃদয়ের আয়না  । ছবিটির কথা হয়তো অনেকেরই মনে নেই। ছবিটিতে তখনকার হিট নায়ক রিয়াজের বিপরীতে অভিনয় করেন নবাগত অভিনেত্রী জেবা। এ চলচ্চিত্রে ‘হৃদয়’ চরিত্রে রিয়াজ এবং ‘আয়না’ চরিত্রে অভিনয় করে বেশ সুনাম কুড়িয়েছিলেন জেবা। ওই এক ছবি করেই হারিয়ে যান এই সম্ভাবনাময়ী নায়িকা। আর কোনো ছবিতে দেখা যায়নি তাকে।

Goldberg is arrested after attacking Brock Lesnar: WWE No Way Out ...

‘প্রা’ণের চেয়ে প্রিয়’ চলচ্চিত্রটিতে অভিনয় করেছেন চিত্রনায়িকা রাভিনা।
নায়ক রিয়াজের ক্যারিয়ারের টার্নিং পয়েন্ট ধরা হয় ‘প্রাণের চেয়ে প্রিয়’ ছবিটিকে। ১৯৯৭ সালে মহম্মদ হান্নান পরিচালিত ব্লকবাস্টার এ ছবিটিতে রিয়াজের বিপরীতে অভিনয় করে নজর কেড়েছিলেন নবাগত রাভিনা। পরবর্তীতে রিয়াজের সঙ্গে আরও একটি ছবিতে তিনি অভিনয় করেছিলেন। কিন্তু সেটি ফ্লপ হয়। এরপর আর অভিনয়ে দেখা মেলেনি রাভিনার। এই নায়িকা কোথায় আছেন, তাও কেউ জানে না।

পড়েনা চোখের পলক প্রাণের চেয়ে ...

শিমলার কথা আসলে সবাই এক নামে এখনো জানে ‘ম্যাডাম ফুলি’
বাংলা চলচ্চিত্রের আরেক সম্ভাবনাময় নায়িকা ছিলেন শিমলা। যিনি অভিষেক ছবিতেই ‘ফুলি’ এবং ‘শিমলা’ নামের দুটি চরিত্রে অভিনয় করে জিতে নিয়েছিলেন ‘জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার’। পরিচালক শহিদুল ইসলাম খোকনের ১৯৯৯ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ওই ছবিতে শিমলার অভিনয় দেখে সকলে মুগ্ধ হয়েছিল। কিন্তু পরবর্তী সময়ে তাকে আর কাজ করতে দেখা যায়নি বরং তিনি সমালোচনার সম্মুখীন হয়েছে।

ম্যাডাম ফুলি' খ্যাত চিত্রনায়িকা ...

২০১৫ সালে ‘নিষিদ্ধ প্রে’মের গল্প’ নামের একটি ছবিতে ১৫ বছরের এক বালকের নায়িকার চরিত্রে অভিনয় করে সমালোচিত হন শিমলা। ছবিতে ওই বালকের সঙ্গে একাধিক যৌনদৃশ্যে দেখা গেছে তাকে। ‘ম্যাডাম ফুলি’র পর আর কোনো ছবিতেই সাফল্য পাননি এই নায়িকা। বর্তমানে তিনি থাকেন ভারতের মুম্বাইয়ে।

আলো ছড়িয়ে পৃথিবীই ছাড়েন অন্তরা।
নব্বইয়ের দশকের শুরুতে শি’শুশিল্পী হিসেবে চলচ্চিত্র জগতে এসেছিলেন অন্তরা। ঐতিহাসিক ঘটনার ওপর নির্মিত ‘সিরাজউদ্দৌলা’ ছবিতে প্রবীর মিত্রের মেয়ের ভূমিকায় প্রথম অভিনয় করেন তিনি। বড় হয়ে ‘পাগল মন’ ছবিতে নায়িকা হিসেবে অভিনয় করেও ব্যাপক আলোচনায় আসেন অন্তরা। এরপর তিনি আরও বেশ কয়েকটি ছবিতে অ’ভিনয় করেন। ২০১৪ সালের ৮ জানুয়ারি মস্তিষ্কে র’ক্তক্ষরণজনিত কারণে হঠাৎ তার মৃত্যু হয়। তবে অন্তরাকে হত্যা করা হয় বলে দাবি করেন তার পরিবার। চোখের আড়াল হলেও মনের আড়াল হননি অন্তরা। আজও তিনি রয়ে গেছেন বহু দর্শকের অন্তরে।

নায়িকা অন্তরা মৃত্যুরহস্য'র নয়া ...

সুইডেনের বাসিন্দা তামান্না।
১৯৯৫ সালে আফজাল হোসেনের নির্দেশনায় স্টারশিপের একটি বিজ্ঞাপনে মডেল হিসেবে কাজ করার মধ্য দিয়ে মিডিয়াতে অভিষেক ঘটে চিত্রনায়িকা তামান্নার। তার অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্র সাইফুল আজম কাশেম পরিচালিত ‘ত্যাজ্যপুত্র। এতে তার নায়ক ছিলেন বাপ্পারাজ। প্রথম ছবিতেই নজর কেড়েছিল তার অভিনয়। এরপর শহিদুল ইসলাম খোকন পরিচালিত ‘ভন্ড’ কুংফু হিরো রুবেলের বিপরীতে অ’ভিনয় করে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পান তামান্না। তার অভিনীত শেষ ছবি ২০১৩ সালে মুক্তি পাওয়া ‘পাগল তোর জন্য রে’। এরপর হঠাৎই দেশ ছেড়ে, অ’ভিনয় ছেড়ে সুইডেনে পাড়ি জমান নায়িকা। স্বামী নিয়ে স্থায়ীভাবে সেখানেই বসবাস করছেন।

তামান্না (Tamanna) - বাংলা মুভি ডেটাবেজ

রত্না “কেন ভালোবাসলাম’ চলচ্চিত্রের নায়কা ছিলেন । কিন্তু তিনি তার খেতি ধরে রাখতে পারেননি।
২০০২ সালে ক্লাস সেভেনে পড়া অবস্থায় ‘কেন ভালোবাসলাম’ ছবির মধ্য দিয়ে চলচ্চিত্রে নাম লেখান রত্না। নায়ক ছিলেন ফেরদৌস। একই বছর কাজী হায়াৎ পরিচালিত ‘ইতিহাস’ ছবিতে কাজী মারুফের বিপরীতে অ’ভিনয় করে সবার নজরে আসেন এই নায়িকা। প্রায় ৫০টির মতো ছবিতে অ’ভিনয় করেছেন তিনি। ২০১৫ সালে হঠাৎই ধস নামে রত্নার ক্যারিয়ারে। সেই ধসেই হারিয়ে যান এই নায়িকা। এরপর ছোট পর্দায় অভিনয় করে টিকে থাকার চেষ্টা করেছিলেন কিন্তু পারেননি।

মনোনয়ন কিনেছেন চিত্রনায়িকা রত্না

মান্নার মৃত্যুতে হারিয়ে যান নায়িকা একা
অভিনয় দিয়ে একসময় বেশ সাড়া ফেলেছিলেন চিত্রনায়িকা একা। নামী পরিচালক কাজী হায়াতের ‘তেজী’ এবং ‘ধর’সহ বেশ কয়েকটি ছবিতে নায়ক মান্নার বিপরীতে তাকে দেখা গিয়েছিল। সে সময় এ জুটিকে বেশ গ্রহণ করেছিল দর্শক। কিন্তু নায়ক মান্না মা’রা যাওয়ার পর একাধিক নায়কের সঙ্গে জুটি বেঁধেও অভিনয় করলেও নিজেকে আর মেলে ধরতে পারেননি একা। দীর্ঘ দিন তিনি অভিনয় থেকে দূরে। ছোট-বড় কোনো পর্দাতেই তার দেখা নেই।

মিডিয়ায় ফিরেছেন চিত্রনায়িকা একা ...

সব ছেড়ে প্রবাসী ইরিন জামান। তিনি অভিনয় জগতে আসেন ১৯৯৯ সালে সোহানুর রহমান সোহান পরিচালিত ‘অনন্ত ভালোবাসা’ছবির মাধ্যমে। নায়ক ছিলেন বর্তমান সুপারস্টার শাকিব খান। দুজনেরই প্রথম ছবি ছিল এটি। ওই ছবিতেই যা একটু নজর কেড়েছিলেন চিত্রনায়িকা মৌসুমীর ছোট বোন ইরিন জামান। এরপর বেশ কয়েকটি ছবিতে তাকে দেখা গেলেও সফলতা পাননি। প্রথম ছবির নায়ক শাকিব চলচ্চিত্রে রাজ করলেও হারিয়ে গেছেন ইরিন। স্বামী-সন্তান নিয়ে বর্তমানে তিনি বাস করছেন যুক্তরাষ্ট্রের আটলান্টায়।

প্রিয় | ইন্টারনেট লাইফ

 

তারকালয় ০৯/০৫/২০ রিয়া

Previous ArticleNext Article