সাজগোজ

রূপচর্চায় শসার ব্যবহার

রূপচর্চার সাথে শসা নামটা অনেক আগে থেকেই প্রচলিত। শসা গুনাগুন এতটাই বেশি যে শসার গুণের কথা বর্ণনা করে শেষ করা যাবে না। শসা যেমন রান্না-বান্নায়, খাওয়া-দাওয়ায় ব্যবহৃত হয় তেমনি ব্যবহৃত হয় রূপচর্চায়ও। দেহের অতিরিক্ত মেদ কমাতে বা রূপচর্চায় শসা ত্বকের উপকার করে থাকে, খুব কম উপাদানই আছে যা শসার মতো উপকার করে থাকে। এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন-সি, ভিটামিন-এ ও প্রচুর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ও আরও অনেক পুষ্টিগুণ। এছাড়াও এর খোসা তেও আছে প্রচুর ডায়টারি ফাইবার।
তাহলে আসুন জেনে নেই রূপচর্চায় কীভাবে শসা ব্যবহার করবেন।

১. শসা ও লেবুর রস : শসা নিয়ে ভালো করে গ্রেট করে নিন ও লেবুর রস ভালো করে মেশান । একটুকরো তুলো নিন । তুলোটিকে পানিতে ভিজিয়ে নিন। তুলোটিকে বল আকৃতিতে রূপান্তর করুন। তারপর এটিকে শসা ও লেবুর পেস্টে ভিজিয়ে নিন। ২০ মিনিট মুখে রেখে ধুয়ে ফেলুন ঠান্ডা জল ইয়ে। এটি ত্বকের অতিরিক্ত তৈলাক্ত ভাব দূর করতে সাহায্য করে।তৈলাক্ত ত্বকের জন্য শসা খুবই উপকারি। তবে ব্রণের ওপর লেবুর রস লাগালে দাগ হয়। তার জন্য শুধু শসার রসই ভালো।

২. শসা ও পুদিনা : শসা ও পুদিনা পাতা দিয়ে তৈরি করতে পারেন ফেস প্যাক। প্রথমে পুদিনা পাতা আর শসা ভালো মতো ধুয়ে নিন এরপর পুদিনা পাতা ও শসা একসঙ্গে ব্লেন্ড করুন। পেস্ট এর মতো হলে সেটি ত্বকে ২০ মিনিট লাগিয়ে রেখে ধুয়ে ফেলুন। সাথে সাথে আপনার ত্বককে করবে স্মূদ ও ঠান্ডা।

৩. শসা ও আলু : শসা ও আলু নিয়ে ভালো করে ব্লেন্ড করে নিন। এরপর শসা ও আলুর রস নিয়ে বরফ করতে ডিপ ফ্রিজে রেখে দিন। এই মিশ্রণটা প্রতিদিন বাহির থেকে এসেই আপনার আন্ডারআই এরিয়া সহ সম্পূর্ণ মুখে ঘষুন। কালো দাগ, সানবার্ন সহ ত্বকের সমস্যা দূর করে।

৪. শসা ও টমেটো : শসা আর টমেটোর বন্ধুত্বটা সালাদ থেকেই। শসা ও টমেটো স্বাস্থ্য ও ত্বকের জন্য অনেক উপকারী। শসার সাথে টম্যাটোর ফেসপ্যাকটি বানাতে টমেটো ২ টুকরো গোল করে কেটে নিন , কাটা শসা ১ টুকরা, ১ চিমটি হলুদ গুঁড়ো ও ১ চামচ মধু সব একসাথে মিশিয়ে ফেসপ্যাক তৈরি করুন। তাই একটি জায়গায় শসার খোসা ছাড়িয়ে শসা ও টম্যাটোর পেস্ট বানান।তারপর সেটি মুখে লাগিয়ে হালকা করে ম্যাসাজ করুন এক থেকে দু মিনিট তারপর সেটি ১৫ মিনিট মত রেখে ধুয়ে ফেলুন ঠান্ডা জলে। এই ফেসপ্যাক ত্বকের পোড়া দাগ সারাতে ও ত্বক উজ্জ্বল করতে সহায়তা করে। এভাবে তৈরি করে নিতে পারেন শসা ও টম্যাটোর ফেসপ্যাক।

৫. শসার রস ও মুলতানি মাটি : একটু শসার রস এবং তার সাথে একটু গোলাপ জল ও মুলতানি মাটি ভালো করে মেশান। আঙ্গুলে অল্প করে লাগিয়ে পুরো মুখে মাখুন। এবার এই পেস্টটি মুখে ১৫ থেকে ২০ মিনিট রাখুন। তারপর হালকা গরম জলে পরিষ্কার করে ফেলুন। এটি ত্বকের অন্যান্য সমস্যা রোধ করতে উপকারি।

৬. শসার রস ও দুধ : ২ টেবিল চামচ শসার পেস্ট ও ২ টেবিল চামচ দুধ ভালো করে মেশান। তৈরি হয়ে গেলো শসা ও দুধের ফেসপ্যাক। তারপর এটি মুখে মাখুন। ১৫ থেকে ২০ মিনিট অপেক্ষা করুন তারপর ধুয়ে ফেলুন। এটি খুব দ্রুত ত্বকের হারানো উজ্জ্বলতা ফিরিয়ে আনে।

তারকালয়/১ সেপ্টেম্বর,২০১৮/রূপা

Previous ArticleNext Article